মহালছড়িতে করোনা শনাক্ত ব্যাক্তির ধান কেটে দিল গ্রামবাসী

0
2

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি :

সারাদেশের ন্যায় পার্বত্য খাগড়াছড়িতে ছাত্রলীগ যখন বিপন্ন মানুষের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়ে মানবিকতার নজির স্থাপন করেছে তখন খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে করোনা শনাক্ত এক ব্যাক্তির ধান কেটে দিয়ে মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো গ্রামবাসী।

রোববার (১৭ মে) সকালের দিকে স্থানীয় কার্বারী সুশান্ত লাল কার্বারীর নেতৃতে দিনব্যাপী ধান কাটা কর্মসূচিতে যোগ দেয় জয়িতা পুরস্কারপ্রাপ্ত নন্দ রানী চাকমা, পুষ্পানী চাকমা, সূর্য চন্দ্র চাকমা, ধনবী চাকমা ও বিরলা চাকমাসহ গ্রামবাসী।

গেল ১৩ মে মহালছড়ির দুইজনের করোনা শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে একজন মনাটেক এলাকার বাসিন্দা। করোনা শনাক্ত হওয়ার পর করোনা ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধে পুরো পরিবারকে লকডাউন করে গ্রামবাসী। ইতোমধ্যে করোনা শনাক্ত হওয়া ওই পরিবারের
জমির ধান পাকতে শুরু করেছে। সময় মতো ধান কাটতে না পারলে তা জমিতেই নষ্ট হবে।
এমন আশঙ্কায় লকডাউনে থাকা সে পরিবারের প্রতি মানবিক সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়ে ধান কাটা শুরু করে গ্রামবাসী। 

জমিতে ধান কাটার পর সে ধান বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কাজেও সহায়তা করা হবে জানিয়েছে জয়িতা পুরস্কারপ্রাপ্ত নন্দ রানী চাকমা বলেন, লকডাউনে থাকা পরিবারটির প্রতি সবধরনের সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত,  ঐ ব্যক্তির  প্রথম ধাপে করোনা ভাইরাস পজেটিভ শনাক্ত হলেও ২য় ধাপে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এখন ৩য় ধাপে নমুনা সংগ্রহের পর স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে  রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত এ পরিবারকে লক ডাউনে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গ্রামবাসী।